আর সাগর পাড়ি দিয়ে ইতালি নয়, শেখ হাসিনার প্রচেষ্টায় খুলছে শ্রমবাজার

হাসানুর রহমান: ইতালি পৃথিবীতে অন্যতম একটি শক্তিশালী রাষ্ট্র। বাংলাদেশ সবথেকে পছন্দের অন্যতম একটি দেশ যে দেশে গেলে মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটে বিশ্বাস করে এটি মানুষ। কিন্তু এই দেশে বৈধভাবে যাওয়ার কোনো সরকারি অনুমোদন নেই। তাই এবারে ইতালীতে পথে বাংলাদেশি শ্রমিকদের যাওয়া ঠেকাতে উভয় দেশ একমত হয়েছে।একই সঙ্গে বৈধপথে বাংলাদেশ থেকে আরও বেশি দক্ষ কর্মী নেওয়ার ব্যাপারে আগ্রহ জানিয়েছেন দেশটি। এ ব্যাপারে সম্ভাব্য কাঠামো কিভাবে তৈরি করা যায় তা নিয়ে উভয় দেশের আলোচনা হয়েছে। আলোচনা হয়েছে নদী পথে অবৈধভাবে কিভাবে শ্রমিক প্রস্থান ঠেকানো যায় প্রাণহানি কমানো যায়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ইতালির প্রধানমন্ত্রী কোটের মধ্যে আনুষ্ঠানিক বৈঠকে এ বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে আলোচনা হয়  বুধবার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।পৃথিবীর অভিবাসন বিষয়ে যে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি রয়েছে সে চুক্তির আওতায় সহযোগিতা সংহত করার পদক্ষেপ নিয়ে বৈঠকে আলোচনা করেন অভয় নেতা।

উল্লেখ্য ২০০৮ সালে ইতালি থেকে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য বাংলাদেশ থেকে কৃষি শ্রমিক পাঠানোর চুক্তি হয়েছিল। ওই চুক্তির অধীনে প্রায় ১৮ হাজার বাংলাদেশি সে দেশে গেলেও মেয়াদ শেষে ফিরে এসেছে ১০০ জনের কম শ্রমিক। এই কাজের কারণে ২০১২ সালে কৃষি শ্রমিক নেওয়ার চুক্তিটি বন্ধ করে দেয় রোম । তবে আশার বাণী এটি হয়তো অল্প কিছু দিনের মধ্যেই সেখাচিনার প্রতিষ্ঠায় আবারো শ্রমিক যাবে ইটালিতে।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *