গরুর অভাবে প্রতিবন্ধী ছেলের কাঁধে লাঙল!

গরুর বদলে প্রতিবন্ধী ছেলের কাঁধে লাঙল দিয়ে জমি চাষ করা সেই কৃষক পেলেন পাওয়ার টিলার। ‘টিম পজিটিভ বাংলাদেশ’-এর পক্ষ থেকে বিনামূল্যে একটি পাওয়ার টিলার দেয়া হয়েছে। ওই অসহায় কৃষকের নাম মনির উদ্দিন। তিনি নওগাঁর মান্দা উপজেলার নূরুল্যাবাদ ইউনিয়নের পার-নূরুল্যাবাদ গ্রামের বাসিন্দা।শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় নূরল্যাবাদ বহুমুখি উচ্চ বিদ্যালয় ও কারিগরি কলেজ মাঠে এসিআই কোম্পানির পাওয়ার টিলারটি দেওয়া হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।বয়জৈষ্ঠ্য দরিদ্র কৃষক মনির উদ্দিনের সংসারে কোন অভাব ছিলনা। ছিল ফসলি জমি ও হালের বলদ। তা দিয়ে সুখেই কেটে যেত তার সংসার। কিন্তু বছর বছর নদী ভাঙনের ফলে সামান্য ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। এখন বসতবাড়ি ও ফসলি সহ তার মোট জমির পরিমাণ ২৫ শতাংশ। এরমধ্যে আবাদি জমি প্রায় ১৫ শতাংশ। এ সামান্য পরিমাণ জমিতে তিনি সারা বছরই আবাদ করতেন। এছাড়া সরকারি প্রণোদনা থেকেও বঞ্চিত ছিলেন তিনি।

 

 

নদী ভাঙন ও ঋণে জর্জরিত হয়ে প্রায় এক যুগ আগে হালের বলদ বিক্রি করতে বাধ্য হয়েছেন কৃষক মনির উদ্দিন। এরপর বলদের দায়িত্ব পড়েছে প্রতিবন্ধী ছেলে মোখলেছুর রহমানের ঘাড়ে। অভাবের তাড়নায় বাহির থেকে বেশি দাম দিয়ে হালচাষ করার মতো তাদের সামর্থ ছিলনা। তাই বাধ্য হয়ে ছেলে মোখলেছুর রহমান লাঙলের মাথায় ও কাঁধে দড়ি বেঁধে টানতেন, আর বৃদ্ধ বাবা মনির উদ্দিন হালের মুঠো ধরে থাকতেন। গরুর বদলে নিজেরাই কষ্ট করে সামান্য এ জমিতে চাষাবাদ করতেন। এভাবেই কেটে গেছে প্রায় একযুগ। তাদের এ কষ্টের বিষয়টি বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশের পর প্রধানমন্ত্রীর নজরে আসে। এছাড়াও দরিদ্র কৃষক মনির উদ্দিনের প্রতি স্থানীয় প্রশাসনের পাশাপাশি বিভিন্ন সংগঠন সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়।আবেগ আপ্লুত কৃষক মনির উদ্দিন বলেন, ‘আমার খুব ভাল লাগতেছে। আজ থেকে প্রায় একযুগের কষ্ট আমার দূর হলো। বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা যেন সবসময় সুস্থ থাকেন। আল্লাহ তাকে যেন দীর্ঘজীবী করেন।’

 

 

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী বলেন, আমাদের প্লাটফর্ম বঙ্গবন্ধুর আর্দশ সৌনিকদের জন্য ‘টিম পজেটিভ বাংলাদেশ’। এরপক্ষ থেকে অসহায় কৃষক ভাইকে শেখ হাসিনার ভালোবাসার উপহার হিসেবে একটি উন্নতমানের পাওয়ার টিলার কৃষক ভাইকে প্রদান করা হয়েছে।এ সময় উপস্থিত ছিলেন-নর্থ বেঙ্গল সিকিউরিটি সার্ভিস লিমিটেড পরিচালক রাকিবুর ইসলাম রনি, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক মেহেদী হাসান, এসিআই মটরস্ লিমিটেড রাজশাহী বিভাগীয় জোনাল ম্যানেজার মেহেদী হাসান, বিজনেস ডেভেলপমেন্ট অফিসার কৃষিবিদ সুজন রহমান, রিকোভারি অফিসার এরশাদ হোসেন, সার্ভিস টিমের সার্ভিস ইঞ্জিনিয়ার কংকর চন্দ্র মোদক।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *