চীনের ঘোষণা ‘এক ইঞ্চি’ জমিও না ছাড় দেবে না।

বিরোধপূর্ণ সীমান্তে উত্তেজনা কমাতে ভারত-চীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর বৈঠকে তেমন সুফল আসেনি। দুই দেশের বৈঠকে ‘এক ইঞ্চি জমিও’ না ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছে চীন। একইসঙ্গে উত্তেজনা বাড়িয়ে তোলায় ভারতকে দোষারোপ করেছে দেশটি।
চীন এক সরকারি বিবৃতিতে শনিবার জানিয়েছে, সীমান্তে সাম্প্রতিক উত্তেজনার কারণ ও বাস্তবতা দু’টিই খুব স্পষ্ট। এই উত্তেজনা সৃষ্টি, জিইয়ে রাখা ও বাড়িয়ে তোলার জন্য ভারতই পুরোপুরি ভাবে দায়ী। চীনের ঘোষণা ‘এক ইঞ্চি’ জমিও না ছাড় দেবে না।
চীন এক ইঞ্চি জমিও ছাড়বে না জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, দেশের সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতা বজায় রাখতে চীনের সেনাবাহিনী দৃঢ়প্রতিজ্ঞ, সক্ষম ও আত্মবিশ্বাসী। চীনের ঘোষণা ‘এক ইঞ্চি’ জমিও না ছাড় দেবে না।
চীন সরকারের এই বিবৃতির পর ভারতীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রণালয় পাল্টা বিবৃতিতে বলেছে, বিপুল সেনা স

মাবেশ, আগ্রাসী মনোভাব ও স্থিতাবস্থা ভেঙে দেয়ার ব্যাপারে চীনের তৎপরতা দ্বিপাক্ষিক চুক্তির শর্তগুলো পুরোপুরি লঙ্ঘন করছে।
সীমান্ত উত্তেজনা নিরসনে শুক্রবার রাশিয়ার মস্কোয় চীনা প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওয়েই ফংহ-র সঙ্গে ভারতীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ ২ ঘণ্টা ২০ মিনিটের বৈঠকে করেন। চীনের ঘোষণা ‘এক ইঞ্চি’ জমিও না ছাড় দেবে না। চীনের ঘোষণা ‘এক ইঞ্চি’ জমিও না ছাড় দেবে
‘সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশন’ এর সম্মেলনে অংশ নিতে দু’জনই মস্কোতে গেছেন। সম্মেলনের ফাঁকে শুক্রবার দিনের শেষভাগে এই দুই নেতা নিজেদের সীমান্তের বিষয়ে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বসেন। বৈঠক শেষে উত্তেজনা হ্রাসে বেইজিংয়ের সঙ্গে নয়াদিল্লি কাজ করতে রাজি হয়েছে বলে জানানো হয়। চীনের ঘোষণা ‘এক ইঞ্চি’ জমিও না ছাড় দেবে না।
শনিবার ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়, উভয় পক্ষই একটি বিষয়ে একমত হয়েছে যে, তারা কেউই সীমান্ত পরিস্থিতি আরো জটিল হয়ে উঠতে পারে বা সীমান্ত এলাকায় উত্তেজনা ছড়াতে পারে এমন কোনো কিছু করবে না।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *