জ্বর-ঠাণ্ডায় আনারস কেন খাবেন জেনে নিন।

চারদিকে করোনা আতঙ্ক। সময়টাও খারাপ যাচ্ছে, খুব একটা সুবিধাজনক না। সামাণ্য গা গরম হলেই অনেকে ভয় পেয়ে যান। এসময় ঠাণ্ডা আর জ্বরের মতো শারীরিক সমস্যা দূর করতে খেতে পারেন আনারস। তাছাড়া গরমে আনারসের সমাদর বহু পুরনো। নানা ধরনের ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস জ্বরেও আনারসের সালাদ খেতে পারেন অনায়াসে।

ফলটি এমনিতেও মুখরোচক। আর জ্বর-ঠাণ্ডায় চলে যাওয়া রুচি ফেরাতেও এর জুড়ি মেলা ভার। আর এটা দিয়ে যদি সালাদ বানানো হয়, তাহলে তো কথাই নেই। চলুন দেখে নেয়া যাক, মুখরোচক আনারসের সালাদ কীভাবে বানানো যায়-

আনারসের সালাদ

উপকরণঃ ৩ কাপ আনারসের টুকরা, রস ১ কাপ, বিট লবণ আধা চা-চামচ, চিনি ২ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ বা শুকনা মরিচ ২/৩টা, ধনেপাতা বা পুদিনা পাতা পরিমাণ মতো।

প্রস্তুত প্রণালিঃ

রেডি করা সব উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করে পরিবেশন করুন। তবে করোনার সময়ে ঠাণ্ডা জিনিস না খাওয়াই ভালো। তাছাড়া এমনিতেও এই সালাদ খেতে খুব সুস্বাদু। ইচ্ছে করলে এই সালাদের সঙ্গে আপনি কিছু শশাও যোগ করতে পারেন।

আনারসে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন এ, বি ও সি। এতে আরও রয়েছে ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, পটাসিয়াম, ব্রোমেলেইন, বিটা-ক্যারোটিন, মিনারেল, শর্করা, ফাইবার, আয়রন, প্রোটিন।

ফলটিতে ফ্যাটের পরিমাণ একেবারেই কম। ফলে এটি ওজন কমাতেও সহায়ক। এটি রুচিবর্ধক ফল। তাই মুখের রুচি বাড়াতে আনারস খেতে পারেন। দেশি এই ফলটি আপনার সারা দিনের ক্লান্তি দূর করে আপনাকে সতেজ করে তুলবে। তাই আনারস খান, সুস্থ থাকুন।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *