দাঁড়িয়ে পানি পান করা কি হারাম?

পানি তৃষ্ণাই মেটানোর পাশাপাশি শরীরের ভারসাম্যও ঠিক রাখে। আমরা প্রায়ই দেখে থাকি বিশ্বের বিভিন্ন মুসলিম খেলোয়াড় মাঠে থাকলেও বসেই পানি পান করেন। ইসলাম ধর্ম মতে, পানি পান করার সুন্নাহ এবং বসে পান করা এর অন্যতম আদব। তবে বিশেষ কোন কারণে দাঁড়িয়ে পানি পান করলে এই কাজটি কি হারাম হবে, বা পানকারী কি গুনাগার হবেন?  ইসলাম এ বিষয়ে কি বলে?দাঁড়িয়ে পানি পান করলে কি হারাম কিনা এ নিয়ে আলেমদের মধ্যেও মতপার্থক্য রয়েছে। আবু হুরায়রা (রা) বর্ণনা করেন, রাসূল (সা) বলেছেন ‘‘কারও দাঁড়িয়ে পানি পান করা উচিৎ নয়। যদি কেউ ভুলে যায় তাকে অবশ্যই বমি করতে হবে।”— সহিহ মুসলিম, বুক ২৩ হাদীস ৫০২২

এই হাদিসটার হুকুম কখন বর্তাবে বা দাঁড়িয়ে পান করা কি তাহলে হারাম? অথবা ইচ্ছাকৃত ভাবে দাঁড়িয়ে পান করলে কি হুকুম আসবে?  তবে স্বাভাবিকভাবে দাঁড়িয়ে পানি পান করা মাকরূহে তানজিহী। কিন্তু বিশেষ প্রয়োজনে দাঁড়িয়ে পানি করাতে কোন সমস্যা নেই। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম থেকে যেমন দাঁড়িয়ে পানি পান করতে যেমন নিষেধাজ্ঞা এসেছে, তেমনি তিনি নিজেই এবং সাহাবাগণ থেকে দাঁড়িয়ে পানি পানের বিবরণও এসেছে।

আমর বিন শুয়াইব তিনি তার পিতা, তিনি তার দাদা থেকে বর্ণনা করেন, তিনি বলেন, আমি রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে দাঁড়িয়ে ও বসে পান করতে দেখেছি। [সুনানে তিরমিজী, হাদীস নং-১৮৮৩]

কাবশাতুল আনছারিয়্যা রাঃ থেকে বর্ণিত, একদা রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তার নিকট প্রবেশ করলেন। তার নিকট একটি ঝুলন্ত পানির পাত্র ছিল। তখন রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তা থেকে দাঁড়িয়েই পান করলেন। [সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-৩৪২৩]
এই হাদিস গুলো প্রমাণ করে, স্বভাবিকভাবে দাঁড়িয়ে পানি পান করা নিষেধ থাকলেও বিশেষ প্রয়োজনে তা বৈধ আছে।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *