পরকীয়া করতে বাড়ির নিচে সুড়ঙ্গ তৈরি, অতঃপর…

স্বামীকে লুকিয়ে বেশ চলছিল পরকীয়া। পাড়া-পড়শিদের চোখ এড়িয়ে দেখা করার এক অভিনব উপায়ও তৈরি করে ফেলেছিলেন ওই যুগল। সকলের চোখ ফাঁকি দিয়ে প্রেমিকা নিজের বাড়ির নিচে আস্ত এক সুড়ঙ্গ কেটে ফেলেছিলেন। যা সোজা পৌঁছে যেত প্রেমিকের বাড়িতে। কিন্তু কথায় আছে, ধর্মের কল বাতাসে নড়ে।

এতদিন সেই সুড়ঙ্গপথে চলছিল প্রেম পর্ব। একদিন ওই নারী স্বামী সময়ের আগেই কাজ থেকে বাড়ি ফিরে আসেন। এসে তো তার চক্ষু চড়কগাছ! বসার ঘরে সোফার তলায় বিরাট এক গর্ত। একটু উঁকি মারতেই তিনি বুঝে যান সেটা সাধারণ গর্ত নয়। রীতিমতো লম্বা সুড়ঙ্গ। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই সুড়ঙ্গের মুখের ছবি ভাইরাল হয়েছে। সেখান থেকেই জানা গেছে, মেক্সিকোয় ঘটেছে এই ঘটনাটি।

জানা গেছে, মেক্সিকোর বাসিন্দা ওই নারীর স্বামীর নাম জর্জ। নিরাপত্তা রক্ষীর কাজ করতেন তিনি। তার বাড়িতে না থাকার সুযোগ নিয়ে পরকীয়া মজেছিলেন স্ত্রী। প্রেমিকের নাম অ্যালবার্তো। জর্জ সুড়ঙ্গের হদিস পেতেই সোজা সেই পথ ধরে হেঁটে অ্যালবার্তোর বাড়ি পৌঁছে যান। তখনই তার কাছে পুরো বিষয় পরিষ্কার হয়ে যায়। কিন্তু প্রেমিক অ্যালবার্তো অনেক চেষ্টা করেছিলেন যাতে জর্জ বাড়ি ফিরে যান। কারণ অ্যালবার্তোর স্ত্রী স্বামীর পরকীয়া নিয়ে কিছুই জানতেন না। কিন্তু অ্যালবার্তোর সেই চেষ্টা ব্যর্থ হয়। জর্জের চিৎকার, চেঁচামেচিতে সবটা জানাজানি হয়ে যায়। এমনকি, পরিস্থিতি এতটাই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে যে পুলিশ পৌঁছে যায় ঘটনাস্থলে। তবে প্রেমিক যুগলের কাহিনী আপাতত সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *