পৃথিবীতে ২০০ কোটি মানুষ খাবার ফেলে দেয় ,খেতে পাই না ৮০ কোটি মানুষ

পৃথিবীতে ধন্যবৈষম্য এক শ্রেণির মানুষকে যেমন বিলাসী জীবনে ডুবিয়ে রাখে  অন্যশ্রেণির মানুষকে আবার রাখে অনাহারি আর পীড়িত করে। ধনীদের ঘরে যখন বাহারি খাবারে সাজানো থাকে  গরিবের তখন নুন আনতে পান্তা  ফুরোয়। আবার উপর তলার মানুষেরা সবসময়ই ধনহীনদের করে শোষিত-বঞ্চিত। গোটা বিশ্বে এমন চিত্র শত-সহস্র বছরের।

ধনবৈষম্য যখন দিনদিনই বাড়ছে তখন জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষিবিষয়ক সংস্থা এফএও-এর প্রতিবেদনে দেখা যায়- বিশ্বে প্রতিদিন অন্তত ৮২ কোটি মানুষ রাতে না খেয়েই ঘুমোতে যায়।  ২০০ কোটি মানুষ অতিরিক্ত খাবার সামনে থাকায় বেশিরভাগই অপচয় করে।

দুনিয়ায় প্রতিরাতে ৮২ কোটি মানুষ  পেটে কিছু না দিয়েই ঘুমোতে যায়  তখন বছরে অন্তত ২২ কোটি ২০ লাখ টন খাবার নষ্ট বা অপচয় করে ধনীরা।


প্রতিবেদনে দেখা যায়- ইউরোপ ও পূর্ব আমেরিকার মানুষ প্রতি বছর গড়ে ৯৫ থেকে ১১৫ কিলোগ্রাম খাবার না খেয়ে নষ্ট করে। সেই তুলনায় সাব সাহারান আফ্রিকা ও এশিয়া অঞ্চলে খাবার ফেলে দেয়ার পরিমাণ অনেক কম। এই দুই অঞ্চলের মানুষ বছরে ৫থেকে ১০ কেজি খাবার অপচয় করে।

বিশ্বের উন্নত দেশগুলোতে বছরে মাথাপিছু খাবারের পরিমাণ  ৯০০ কেজি সেখানে তুলনামূলক অনুন্নত দেশগুলোতে বছরে জনপ্রতি খাবার পায় ৪৫০ কেজি।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *