বাংলাদেশ ভারতের পাঁচ খেলোয়াড়ের শাস্তি

হাসানুর রহমান:দক্ষিণ আফ্রিকায় সদ্যসমাপ্ত যুব ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনালের পর বিভাজনের ঘটনায় বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ১৯ দলের ৩ জন । ভারত অনূর্ধ্ব ১৯ দলের 2 খেলোয়াড় কে শাস্তি দিয়েছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা আইসিসি।প্রসঙ্গত ফাইনাল খেলায় দুটি দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে শুধু মাঠের লড়াইয়ের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকেনি সেটি ছড়িয়ে পড়েছে মাঠের বাইরে এবং খেলোয়াড়দের মাঝে। ক্রিকেটবোদ্ধারা বলে করে ভারত বাংলাদেশ ক্রিকেট দূরত্বের কারণে এটি সৃষ্টি। এক সময় ভারত পাকিস্তান খেলা হলে যেমনটি মনে করা হতো। বর্তমানে বাংলাদেশে ভারত খেলাতেই খেলার এবং দর্শকদের মধ্যে সেই উত্তেজনা বিরাজ করে। বেশ কিছু ফাইনাল ভারতের কাছে জিততে জিততে হেরে যায় বাংলাদেশ। তাই যুব বিশ্বকাপ ফাইনালে তারই কিছুটা প্রভাব লক্ষ করা যায়। দক্ষিণ আফ্রিকার পচেপসযটুমে গত রোববার ফাইনালে ভারতকে ৩ উইকেটে হারিয়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয় বাংলাদেশ। কিন্তু শিরোপা জয়ের উৎসব যেন একটু মাত্রা ছাড়াই। ম্যাচ শেষে দুই দলের ক্রিকেটারদের মধ্যে বাকযুদ্ধ তর্কাতর্কি ও হাতাহাতি করতে দেখা যায়। বাংলাদেশের শাস্তিপ্রাপ্ত খেলোয়াড় হচ্ছেন তৌহিদ হৃদয় শামীম হোসেন ও রাকিবুল হাসান।

ভারতের শাস্তিপ্রাপ্ত খেলোয়াড় হচ্ছেন আকাশ , রবি কৃষ্ণ,। প্রত্যেকের বিরুদ্ধেই আইসিসির কোড অফ কন্টাক ২.২১ ধারা ভঙ্গের অভিযোগ আনা হয়েছে। পাঁচজনের মধ্যে রবি বিরুদ্ধে ২.৫ ধারা ভঙ্গের অভিযোগ আনা হয়েছে। শাস্তি মধ্যে বাংলাদেশের তৌহিদ হৃদয় শামীম হোসেনকে দেওয়া হয়েছে ৬টি পয়েন্ট। আর রাকিবুল কে দেওয়া হয়েছে পাঁচটি ডিমেরিট পয়েন্ট।অন্যদিকে ভারতের আকাশ থেকে দেয়া হয়েছে ৬ টি টেবিলের পয়েন্ট ও রবিকে দেয়া হয়েছে পাঁচটি  পয়েন্ট।২.২পয়েন্ট টু পাশাপাশি আর্টিকেলের 2.5 ধারা ভঙ্গের দায়ে আরও দুটি বেশি ড্রাইভারের পয়েন্ট দেয়া হয়েছে তার ডিমেরিট পয়েন্ট মোট সাতটি। অনফিল্ড আম্পায়ারদের রিপোর্টের ভিত্তিতে ম্যাচ রেফারি সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন। এবং ৫ ক্রিকেটারই তাদের শাস্তি মেনে নিয়েছেন।বাংলাদেশের অভিষেক দাস কে আউট করার পর খারাপ ভাষা ব্যবহার অশালীন ইঙ্গিতে বঙ্গভঙ্গের মাধ্যমে প্রতিপক্ষকে উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে বিষ্ণু কে দুটি বাড়তি দিয়েছে আইসিসি ।তীব্র উত্তেজনা পূর্ণ ফাইনাল খেলা শেষে উভয় দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে বিবাদের বিষয়টি নিয়ে সোমবার বাংলাদেশ ভারতের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার ঝড় ওঠে।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *