বিশ্বকাপজয়ী জার্মান ফরোয়ার্ড আন্দ্রে শুরলে অবসরে

চাইলে আরও কয়েক বছর খেলে যেতে পারতেন। কিন্তু পেশাদারি ক্যারিয়ারটা আর দীর্ঘায়িত করলেন না আন্দ্রে শুরলে। মাত্র ২৯ বছর বয়সে বুটজোড়া তুলে রাখার ঘোষণা দিলেন বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের জার্মান ফরোয়ার্ড।

খ্যাতির চুড়ায় তেমন তিনি কখনও ছিলেন না। তবে দেশের ফুটবল ভক্তদের কাছে তিনি কিংবদন্তিদের জায়গায়। ২০১৪ বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে জার্মানদের ১-০ ব্যবধানে জয়ের ম্যাচের অন্যতম নায়ক ছিলেন তিনি। অতিরিক্ত সময়ে বদলি হিসেবে নামা শুরলের পাস থেকে লিওনেল মেসিদের বিশ্বকাপ স্বপ্ন কেড়ে নেন মারিও গোৎশে।

২০০৯ সালে বুন্দেসলিগার ক্লাব মেইঞ্জের হয়ে পেশাদারি ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন শুরলে। পরে বেয়ার লেভারকুজেন হয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব চেলসিকে নতুন ঠিকানা হিসেবে বেছে নেন। কিন্তু স্টামফোর্ড ব্রিজে বেশিদিন থাকেননি। ফের ফিরে আসেন বুন্দেসলিগায়।

ভলসবুর্গ হয়ে থেকে ২০১৬ সালে যোগ দেন ডর্টমুন্ডে। তবে সেখানেও তার যুদ্ধ চলতে থাকে চোটের সঙ্গে। কাগজে-কলমে ডর্টমুন্ডের হলেও গত দুই মৌসুম তিনি ধারে খেলেছেন ইংলিশ ক্লাব ফুলহাম এবং রাশিয়ান ক্লাব স্পার্তাক মস্কোতে।

বিশ্বজয়ের পর অবশ্য জাতীয় দলেও বেশিদিন খেলেননি শুরলে। ২০১০ থেকে ২০১৭ সালের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ৫৭ ম্যাচে ২২ গোল করেছেন তিনি।

 

 

চাইলে আরও কয়েক বছর খেলে যেতে পারতেন। কিন্তু পেশাদারি ক্যারিয়ারটা আর দীর্ঘায়িত করলেন না আন্দ্রে শুরলে। মাত্র ২৯ বছর বয়সে বুটজোড়া তুলে রাখার ঘোষণা দিলেন বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের জার্মান ফরোয়ার্ড।

খ্যাতির চুড়ায় তেমন তিনি কখনও ছিলেন না। তবে দেশের ফুটবল ভক্তদের কাছে তিনি কিংবদন্তিদের জায়গায়। ২০১৪ বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে জার্মানদের ১-০ ব্যবধানে জয়ের ম্যাচের অন্যতম নায়ক ছিলেন তিনি। অতিরিক্ত সময়ে বদলি হিসেবে নামা শুরলের পাস থেকে লিওনেল মেসিদের বিশ্বকাপ স্বপ্ন কেড়ে নেন মারিও গোৎশে।

২০০৯ সালে বুন্দেসলিগার ক্লাব মেইঞ্জের হয়ে পেশাদারি ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন শুরলে। পরে বেয়ার লেভারকুজেন হয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব চেলসিকে নতুন ঠিকানা হিসেবে বেছে নেন। কিন্তু স্টামফোর্ড ব্রিজে বেশিদিন থাকেননি। ফের ফিরে আসেন বুন্দেসলিগায়।

ভলসবুর্গ হয়ে থেকে ২০১৬ সালে যোগ দেন ডর্টমুন্ডে। তবে সেখানেও তার যুদ্ধ চলতে থাকে চোটের সঙ্গে। কাগজে-কলমে ডর্টমুন্ডের হলেও গত দুই মৌসুম তিনি ধারে খেলেছেন ইংলিশ ক্লাব ফুলহাম এবং রাশিয়ান ক্লাব স্পার্তাক মস্কোতে।

বিশ্বজয়ের পর অবশ্য জাতীয় দলেও বেশিদিন খেলেননি শুরলে। ২০১০ থেকে ২০১৭ সালের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ৫৭ ম্যাচে ২২ গোল করেছেন তিনি।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *