বিশ্ব রেকরড ওস্টেন্ডিজ এর ।

সাউদাম্পটনে বৃষ্টিবিঘ্নিত টেস্টে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে কাঁদিয়ে ছেড়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৪ উইকেটের জয়ে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে সফরকারি দল। ইংল্যান্ডের মাটিতে গত ২০ বছরে সিরিজের প্রথম টেস্ট জিততে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এবার জেসন হোল্ডারের নেতৃত্বে সেই খরা কাটল ক্যারিবীয়দের।

শুধু তাই নয়, এই জয়ের ফলে আরও একটি অনন্য রেকর্ড নিজেদের দখলে রাখল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কি সেই রেকর্ড? চতুর্থ ইনিংসে ২০০ বা তার কম রান তাড়া করে কখনই না হারার রেকর্ড।

চতুর্থ ইনিংসে এর আগে কখনই দুইশ বা তার কম রান তাড়া করে হারের মুখ দেখেনি ক্যারিবীয়রা। এর মধ্যে জিতেছে ৫৫টিতেই, ড্র করেছে ৬ বার। সবমিলিয়ে ৬১তম বারের মতো ২০০ বা তার কম রান তাড়া করে জেতার রেকর্ড অক্ষুন্ণ রাখল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

এমন জয়ের পর রীতিমত প্রশংসায় ভাসছেন জেসন হোল্ডাররা। সেটা তো তাদের প্রাপ্যই! সিরিজ শুরুর আগে ফেবারিটের তকমা গায়ে লাগানো ছিল ইংল্যান্ডের। এখন বরং সিরিজ জয়ের রাস্তা বড় হয়ে গেছে সফরকারিদের সামনেই।
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল ১৯৬০-৬১ মৌসুমে ফ্রাঙ্ক ওরেলের অধিনায়কত্বে অস্ট্রেলিয়া গমন করে। ফ্রাঙ্ক ওরেল ও তার প্রতিপক্ষীয় অধিনায়ক রিচি বেনো স্ব-স্ব দলকে আক্রমণধর্মী খেলার জন্যে উৎসাহিত করেন। পাঁচ-টেস্ট নিয়ে গড়া সিরিজের প্রথম টেস্টটি ইতিহাসের প্রথম টাই টেস্ট হিসেবে স্বীকৃতি পায় ও নাটকীয়ভাবে শেষ হয়। ঐ টেস্টটি ইতিহাসের মাত্র দুইটি ঘটনার মধ্যে প্রথম ছিল। তাসত্ত্বেও, ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল স্বল্প ২-১ ব্যবধানে পরাজিত হয়। একটি ড্র ও অপরটি টাই হয়েছিল। দলটি খুব সহজেই শেষ দুই খেলায় জয় পেয়ে ৩-১ ব্যবধানে নিজেদের অনুকূলে নিয়ে আসতে পারতো। চিত্তাকর্ষক সিরিজ উপহার দেয়ায় অস্ট্রেলীয়দের কাছে দলটি বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করে। অস্ট্রেলিয়া ত্যাগ করার পূর্বে দলটিকে মেলবোর্নে উন্মুক্ত গাড়ীতে আরোহণের মাধ্যমে ১৭ ফেব্রুয়ারি, ১৯৬১ তারিখে কুচকাওয়াজের আয়োজন করা হয় ও অগণিত দর্শক হর্ষোৎফুল্লে মেতে উঠে।

অধিনায়ক হিসেবে ফ্রাঙ্ক ওরেলের সফলতা ঈর্ষণীয় ছিল। কেননা, তার পূর্বে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সকল অধিনায়কই ছিলেন শ্বেতাঙ্গ। ব্যতিক্রম হিসেবে জর্জ হ্যাডলি নিজ দেশে ১৯৪৭-৪৮ মৌসুমে একটি টেস্টে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন
গত বিশ বছরের মধ্যে ইংল্যান্ডের মাটিতে একটি টেস্ট ম্যাচে জয় পেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের লেগেছিল ১৭ বছর। আজ গত ২০ বছরের মধ্যে ইংলিশদের বিপক্ষে তাদের মাটিতে দ্বিতীয় ম্যাচে ৪ উইকেটের জয় তুলে নিয়েছে ক্যারিবিয়ানরা। তিন বছর আগে ২০১৭ সালে ২০০০ সালের পর প্রথম টেস্ট ম্যাচ জয়ের পর ৩ বছর পর ২০২০ এ এসেই প্রথম ম্যাচে জয় তুলে নিল তারা। আর এর মাধ্যমে আইসিসির টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে প্রথম পয়েন্টও তুলে নিয়েছে জেসন হোল্ডার বাহিনী। সঙ্গে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজে ১-০ তেও এগিয়ে গেল তারা।

ইংল্যান্ডের দেয়া ২০০ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে প্রথমে হোঁচটই খেয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। মাত্র ২৭ রানের মধ্যে ৩টি উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল তারা। কিন্তু সেই বিপর্যয় থেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে টেনে আনেন জারমাইন বø্যাকউড। তিনি ৯৫ রান করে দলকে বিপর্যয় থেকে বাঁচানোসহ প্রায় জয় নিশ্চিত করে আউট হন। দ্বিতীয় ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৭ রান করেন রসটন চেজ। অপরদিকে ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ ৩টি উইকেট তুলে নেন জোফরা আরচার।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *