ভিক্ষুক নারীরাও রেহাই পায়নি মজনুর হাত থেকে

ভিক্ষুক-প্রতিবন্ধী নারীরাও রেহাই পায়নি ধ’র্ষক মজনুর হাত থেকে। মজনু কুর্মিটোলায় যে স্থানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের যে স্থানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছা’ত্রীকে ধ’র্ষণ করে একই স্থানে আরও অনেক নারী তার ধ’র্ষণের শিকার হয়েছে। গ্রে’ফতারের পর আইনশৃংখলা বাহিনীর কাছে দেয়া প্রাথমিক স্বীকারোক্তিতে এই তথ্য দিয়েছে মজনু।

বুধবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যা’ব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানিয়েছেন র‌্যা’বের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল সারওয়ার-বিন-কাশেম। তিনি বলেন, মজনু একজন সিরিয়াল রেপিস্ট। এর আগে সে ভিক্ষুক ও প্রতিবন্ধী নারীদেরও ধ’র্ষণ করেছে। মজনু একই স্থানে অনেককে ধ’র্ষণ করেছে বলে স্বীকার করেছে।

মঙ্গলবার রাতে ধ’র্ষক স’ন্দেহে মজনুকে আ’ট’ক করা হয়। পরদিন সকালে ভিকটিম নিশ্চিত করার পরই তাকে গ্রে’ফতার দেখানো হয়।

৫ জানুয়ারি সন্ধ্যা ৭টার দিকে রাজধানীর কুর্মিটোলা হাসপাতাল এলকাকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষের ওই ছা’ত্রী ধ’র্ষণের শিকার হন।

জানা যায়, বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে করে শেওড়ায় বান্ধবীর বাসায় যাচ্ছিলেন ওই ছা’ত্রী। সন্ধ্যা ৭টার দিকে তিনি ভুল করে কুর্মিটোলায় বাস থেকে নামা’র পর এক ব্যক্তি তার মুখ চেপে ধরে পাশের নির্জন স্থানে নিয়ে যান। সেখানে তাকে অ’জ্ঞান করে ধ’র্ষণ ও শারীরিক নি’র্যাতন করেন।

রাত ১০টার দিকে জ্ঞান ফিরলে তিনি বিষয়টি বুঝতে পারেন। পরে সেখান থেকে অটোরিকশায় করে বাসায় ফেরার পর রাত ১২টার দিকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় ক্যান্টমেন্ট থা’নায় ওই ছা’ত্রীর বাবার দায়ের করা মা’মলায় মজনুকে গ্রে’ফতার দেখানো হয়েছে।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *