মাকে শেষ বিদায় জানাতে হাসপাতালের দেয়াল বেয়ে জানালায় ছেলে!

করোনা ভাইরাস মহামারি গোটা বিশ্বের চিত্র পাল্টে দিয়েছে। সংক্রমণ প্রতিরোধে মানুষ বিচ্ছিন্ন জীবন যাপন করতে বাধ্য হচ্ছে।করোনায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন পরিবারের অসুস্থ সদস্য বা বন্ধুদের দেখতে যাওয়ারও সুযোগ নেই।তবুও রক্তের টান কোথাও কোথাও দৃষ্টান্ত তৈরি করছে। ফিলিস্তিনের এমনই একটি ঘটনা আলোড়ন তুলেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ভাইরাল একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে, একটি হাসপাতালের কয়েকতলা ওপরে দেয়াল বেয়ে উঠে কাচের জানালার পাশে বসে আছেন এক যুবক। তাকিয়ে রয়েছেন ভেতরের দিকে।

৩০ বছর বয়সী এ যুবকের নাম জিহাদ আল সুয়াইতি। তার মা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হেব্রন স্টেট হসপিটালে ভর্তি হয়েছেন। হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি অসুস্থ মাকে দেখতে যাওয়ার অনুমতি পাননি তিনি। তাই মাকে দেখার জন্য তিনি এরকম বিপদজনক ভাবে হাসপাতালের দেয়াল বেয়ে উঠে জানালার ধারে বসে থাকতেন।হাসপাতালে মায়ের মৃত্যুর আগ পর্যন্ত রোজ রাতে এভাবেই জানালার ধারে বসে থাকতেন জিহাদ।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার আগে থেকেই তার মায়ের লিউকেমিয়া ছিল। আক্রান্ত হওয়ার পর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পাঁচদিন তিনি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।জিহাদ বলেন, ‘আমার খুব অসহায় লাগতো। তাই শেষবারের মতো মাকে দেখতে হাসপাতালের জানালার ধারে বসে থাকতাম। ’

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *