হোটেলে হাতেনাতে ধরা রানি-গোবিন্দ!

বলিউড অভিনেত্রী রানি মুখার্জির সঙ্গে ফিল্মফেয়ার সেরা কমেডিয়ান অভিনেতা গোবিন্দের পরিচয় হয়েছিল ‘হাদ কর দি আপনে’ ছবির শুটিং সেটে। সেই ছবির শুটিংয়ের সুবাদেই তারা প্রথমবার একসঙ্গে ভারতের বাইরে সুইজারল্যান্ড কিংবা মার্কিন মুলুকে যান। শুটিং চলাকালে একদিন সুইজারল্যান্ডের এক হোটেলে রানির সঙ্গে গোবিন্দকে হাতেনাতে ধরে ফেলেছিলেন এক সাংবাদিক!

অভিনয়ের বাইরে ব্যক্তিগত জীবন ঘিরে গোবিন্দের সঙ্গে বলিউডের একাধিক অভিনেত্রীর নাম জড়িয়ে আছে। এর মধ্যে ভারতের জুয়েলারি ডিজাইনার ও সাবেক অভিনেত্রী নীলম কোঠারি অন্যতম। শোনা যায়, নীলমকে পাগলের মতো ভালোবাসতেন গোবিন্দ। এমনকি তারা বিয়ের করারও নাকি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।
কিন্তু গোবিন্দ-নীলমের বিয়েতে বড় বাধা হয়ে আসে দুই পরিবারের অসম্মতি। নীলমের মতো একজন সুন্দরী, তুখোড় ইংরেজি জানা মেয়েকে গোবিন্দের হাতে তুলে দেয়া নিয়ে পারিবারিকভাবে প্রশ্ন উঠে। নীলমকে না পেয়ে বিরহকাতর গোবিন্দকে খুব বেশিদিন একা থাকতে দেননি তার মা। এরপর মায়ের পছন্দের পাত্রী সুনীতার সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন গোবিন্দ।

গোবিন্দ যখন সুনীতার সঙ্গে চুটিয়ে সংসার করছিলেন ঠিক তখনই সামনে আসে ‘হাদ কর দি আপনে’ ছবিটি। সেই ছবির সেটেই রানির সঙ্গে গোবিন্দের পরিচয় হয়। শোনা যায়, ছবির শুটিংয়ের জন্য বিদেশে পাড়ি দেয়ার পর গোবিন্দ ও রানিকে প্রায়ই একসঙ্গে দেখা যেতো। তখন একদিন সুইজারল্যান্ডের এক হোটেলে রানির সঙ্গে গোবিন্দকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন এক সাংবাদিক। একটা পর্যায়ে সেই খবর পৌঁছে সুনীতার কানে। রানির সঙ্গে এক হোটেলে থাকা, একসঙ্গে একান্তে সময় কাটানো, এসব প্রকাশ্যে আসার পরও কখনও প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি সুনীতা। তিনি নীরবেই স্বামীর ঘর ছেড়ে বাপের বাড়ি চলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। তখন সত্যি সত্যিই ভেঙে পড়েছিলেন গোবিন্দ!

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *