২৫২ প্রবাসী অবশেষে সৌদির উদ্দেশে দেশ ছাড়লেন

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের মহামারীতে বন্ধ থাকায় দেশে আটকে পড়া ২৫২ জন প্রবাসীকে নিয়ে সৌদি আরবের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছে সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট।মঙ্গলবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ১২টা ৫৭ মিনিটের দিকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে ফ্লাইটটি। ফ্লাইটটি সকাল ৭টার দিকে রিয়াদ বিমানবন্দরে ল্যান্ড করবে।ছুটিতে এসে ১০ মাস ধরে আটকেপড়া বেশ অনেক প্রবাসী রয়েছেন ওই ফ্লাইটে। এদের মধ্যে অনেকেরই ভিসার মেয়াদ শেষের তারিখ ৩০ সেপ্টেম্বর। যে কারণে গত তিন দিন ধরে টিকিট না পেয়ে রাজধানীতে বিক্ষোভ করেছেন এসব প্রবাসী।ওই ফ্লাইটের কয়েকজন যাত্রী জানিয়েছেন, ছুটিতে এসে করোনার কারণে দেশে আটকা পড়েছিলেন তারা। এদিকে তাদের ভিসার মেয়াদ শেষ প্রায়। সৌদি আরবে থাকা বন্ধুদের মাধ্যমে সেখান থেকে টিকিট রি ইস্যু করে নিয়েছেন তারা। করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট করে অবশেষে ফ্লাইট ধরেছেন

দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর প্রায় ২৫২ জন প্রবাসীকে নিয়ে সৌদি আরবের রিয়াদের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছে সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে ফ্লাইটটি।সৌদি আরব থেকে ছুটিতে আসা কয়েক হাজার প্রবাসীর ভিসার মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর। এর মধ্যেই সৌদি যেতে দরকার বিমানের টিকিট। কিন্তু সেই টিকিট পেতেই যত ভোগান্তি। গত তিন দিন ধরে টিকিট না পেয়ে রাজধানীতে বিক্ষোভ করেছেন প্রবাসীরা।

অন্যদিকে, সৌদি আরব বিমান বাংলাদেশে এয়ারলাইন্সকে আগামী ১ অক্টোবর থেকে বাণিজ্যিক ফ্লাইট পরিচালনার সিদ্ধান্ত প্রদান করেছে। তবে যাত্রীদের আসন বরাদ্দ শুরু করার আগে সৌদি আরবে ল্যান্ডিং পারমিশন আবশ্যক হলেও সেটির অনুমতি পায়নি বাংলাদেশ বিমান। এ কারণে এখনো টিকিট বিক্রি শুরু করতে পারেনি বিমান।এদিকে, সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্স ফ্লাইটের সংখ্যা বাড়াতে চাইলে অনুমতি দেবে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ। সংস্থাটির চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান বলেন, ‘এত দিন সৌদি আরবের সঙ্গে আমাদের আকাশ পথে যোগাযোগ পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন ছিল। মধ্যপ্রাচ্যের অনেক দেশই ফ্লাইট শুরু করেছে। আমরা চাচ্ছিলাম সৌদি আরব থেকেও ফ্লাইট শুরু করতে আমরা সর্বাত্মক সহযোগিতা করছি। সৌদি আরবে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে কথা বলেছি। বাংলাদেশিদের ফিরে যেতে সাউদিয়া যে কয়টি ফ্লাইটের অনুমোদন চাইবে, আমরা দেব। যেন প্রবাসীরা ফিরে যেতে পারেন। একইসঙ্গে আমাদের বিমান বাংলাদেশও যেন যেতে পারে সেজন্য কাজ করছি।’

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *