৭০ নারী পুরুষকে ধোঁকা দেন !

প্রতিবেদক হাসান

পৃথিবীতে অন্যরকম ইতিহাস ঐতিহ্য সমৃদ্ধ একটি দেশ ভারত। নানা বিচিত্র ময় মানুষের বসবাস এ দেশে। ভারতের প্রতি ১০ জন নারী সাতজনই অর্থাৎ ৭০% নারী-পুরুষকে ধোঁকা দেন বলে দাবি করা হয়েছে গবেষণায়। গ্লিদেন নামের এক extra-marital অ্যাপের করা জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটি। নারী শব্দটা আকস্মিক নারীরা কেন বেবিচারে জড়িয়ে পড়েছেন, শিরোনামে জরিপটি পরিচালনা করা হয়। বেঙ্গালুরু মুম্বাই কলকাতার মত শহরের নারীরা সবচেয়ে বেশি পরকীয়ায় লিপ্ত হচ্ছেন বলে জরিপে উঠে এসেছে। এছাড়া এই অঞ্চলের নারীদের সাংসারিক চিন্তাভাবনা খুবই কম ‌স্বামীর সঙ্গে বৈবাহিক জীবনে অসুখী অবজ্ঞা ও গৃহস্থলীর কাজে স্বামীর সহযোগিতা না করাকেই যুক্তি হিসেবে দান করেন।জরিপে প্রতিষ্ঠানটি একজন মারকেটিং স্পেশালিস্ট পাইলটকে বলেন জরিপে অংশ নেয়া প্রতি ১০জন নারীর চারজন জানিয়েছেন অপরিচিতদের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়ানোর পর স্বামীর সঙ্গে তাঁদের ঘনিষ্ঠতা বেড়েছে।সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছেন এমন নারীদের টার্গেট করে ২০০৯সালে গ্লিডেন অ্যাপ এর যাত্রা শুরু হয় ফ্রান্সে। আট বছর পর ২০১৭ সালে ভারতে এটি যাত্রা ‌এখন এখন ফরাসি এই

অনলাইন প্লাটফর্মে মোট ব্যবহারকারী ৩০ শতাংশই ভারতীয় বিবাহিত নারী যাদের বয়স ৩৪ থেকে ৪৯এর মধ্যে।ব্যবহারকারী 20 শতাংশ পুরুষ ও ১৩ শতাংশ নারী তাদের স্ত্রী এবং স্বামীকে ঠকিয়ে পরকীয়া করছেন বলে স্বীকার করেছেন।স্বামীকে ঠকিয়ে পরকীয়া করছে এমন ৭৭ শতাংশ ভারতীয় নারী বলেছেন তাদের বিবাহিত জীবন একঘেয়ে হয়ে পড়েছে। তাই তারা বিয়ের বাইরে একজন সঙ্গীকে খুঁজে নিচ্ছেন। নিজের স্বামীর বাইরে একজন সঙ্গী পাওয়ার মধ্যে তারা ভিন্ন ধরনের উত্তেজনা অনুভব করে। তারা আরো বলেছেন স্বামীর ব্যস্ততা কারণে অনেক সময় তাদের মৌন মস্তিষ্ককে সচল রাখার জন্য পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ছে। স্বামীর অপারগতা এবং যৌন চাহিদা অনেক সময় মুখ্য বলে জানিয়েছেন তারা। ভারতের প্রায় ৪৮ শতাংশ নারী মনে করে বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক থাকা উচিত:; জরিপে এমন তথ্য উঠে এসেছে।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *